শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৪৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কয়রা উপজেলা শাখার ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ জন্মদিন পালন তথ্য প্রযুক্তির যুগে জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত হোক’ চট্টগ্রাম লোহাগাড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, বিভিন্ন অপরাধের ৫ মামলায় ১৬’০০০টাকা জরিমানা সাংবাদিকের বিরুদ্ধে হয়রানিমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে লোহাগাড়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের মানববন্ধন পাইওনিয়ার মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন পালন নগরকান্দায় প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কান্ড – সরকারি বই ঝোপঝাড়ে ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালন ভৈরবে মুর্শিদ মুজিব উচ্চ বিদ্যালয়ে শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উদযাপন গাইবান্ধার বামনডাঙ্গা আব্দুল হক ডিগ্রি কলেজের অনিযমের অভিযোগ,নিয়োগ বানিজ্যে মেতে উঠেছে অধ্যক্ষ মাদারীপুরে জেলা পর্যায়ে ২০২২ জাতীয় শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকা শিক্ষা পদক পেলেন মোছাঃ রাকিবা সুলতানা
দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

 

আমতলীতে আবাসনের পাকা ভবন পুকুরের পানিতে ধসে পড়ার আশঙ্কা

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩১ আগস্ট, ২০২২
  • ৬৮ বার দেখেছে

এস এম নাসির মাহমুদ
আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি=
বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের মোল্লা পাড়া গ্রামে গরীবের জন্য নির্মিত আবাসনের পাকা ভবন পুকুরের পানিতে ধসে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। ভবনের ধস ঠেকাতে সংশ্লিষ্ট কতর্ৃপক্ষের কোন নজর নেই বলে অভিযোগ আবাসনে বসবাসরত বাসিন্দাদের। জানা গেছে, ২০০৯ সালে আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ তক্তাবুনিয়া গ্রামের মোল্লা পাড়া গ্রামে ৭ একর ৭০ শতাংশ জমিতে ১৯০টি ভূমিহীন পরিবারের বসবাসের জন্য জাপানী সরকারের আর্থিক সহায়তায় ৩৮টি পাকা ভবন নির্মান করে সরকার। এজন্য এই আবাসনের পরিচিতি পায় জাপানী ব্রাক হাউস নামে। ভবন নির্মানের সময় ভিটি ভরাটের জন্য মাঝখানে বিশাল আকারের এক পুকুর খনন করা হয়। খনন করা এই পুকুর এখন আবাসনের বাসিন্দাদের গলার কাটা হয়ে দাড়িছে। খনন করা এই পুকুরের চারদিক ঘিরে ভবনগুলো নির্মান করা হয়। ঘূর্নিঝড় এবং বাতাসের ঢেউয়ের কারনে প্রতিনিয়ত পুকুরের পারের মাটি ভেঙ্গে এখন ভবন ধসের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। পুকুরের পূর্ব পারে ৬টি ভবন রয়েছে। এই ভবনগুলো ভাঙ্গনের ঝুকিতে রয়েছে। এর মধ্যে ১৪ নম্বর ভবনটি অধিক ঝঁুকিতে রয়েছে। এই ভবনের পশ্চিম পাশের মাটি সরে যাওয়ায় ভবনটি এখন যে কোন সময় ধসে পরতে পারে। ভবন ধসের আশঙ্কায় ওই ভবনের বাসিন্দারা এখন অন্যত্র চলে গেছে। ১৪ নম্বর ভবনের বাসিন্দা বাবুল মাতুব্বর বলেন, বৌ, মাইয়া পোলা লইয়া অনেক দিন মোরা এই হানে থাকতাম। এহন দেহি বিল্ডিং ভাইঙ্গা পরা ধরছে। ডরে মোরা এহন আর ওই হানে থাহি না। আবাসনে বসবাস রত রিজিয়া বেগম বলেন, পুকুরের পার খালি ভাঙ্গে আর ভাঙ্গে। এহন ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে মোগো বিল্ডিং ও ধরছে। রোকেয়া নামের আরেক বাসিন্দা বলেন, পুহুরের পারের মাডি ভাইঙ্গা খালি পানিতে পরে। এই রহম ভাঙ্গলে মোগো সব শ্যাষ অইয়া যাইবে। শনিবার সকালে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, পুকুরের পারের মাটি ভাঙ্গনের ফলে আবাসনের ৬টি ভবন ঝুকিতে রয়েছে। এর মধ্যে ১৪ নম্বর ভবনটির গোরার মাটি সরে যাওয়ায় যে কোন সময় একাংশ পানিতে ধসে পরতে পারে। পশ্চিম পারের বাধানো পাকা ঘাটের একাংশের মাটি ধসে পরেছে। পানিতে ধসে পরছে বাসিন্দাদের চলাচলের সড়ক। এছাড়া ভবনগুলো নির্মানের পর সংস্কার না করায় দরজা জানালা খসে পরেছে। খসে পরেছে অনেক ভবনের পলেস্তারার। মরিচা ধরে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় অনেক ভবনের দরজা জানালা আটকানো যায় না ঠিক মতো। এতে রাতের বেলায় ঝঁুকি নিয়ে ঘুমাতে হয় বসবাসরতদের। আবাসনের সভাপতি মো. ফারুক মুছুল্লী জানান, আবাসনের কয়েকটি ভবন, চলাচলের সড়ক, পুকুরের পাকা ঘাট পুকুরের পানিতে ধসে পরার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। একটি ভবন খুব ঝঁুকি পূর্ন হয়ে পরেছে। যে কোন সময় পানিতে ধসে পরতে পারে। আবাসনের সম্পাদক বেল্লাল হাওলাদার জানান, নির্মানের পর ভবনগুলো সংস্কার না করায় অবস্থা অনেক খারাপ হয়ে গেছে। দরজা জানালা খুলে পরে গেছে, ভবনের পলেস্তারার খসে পরেছে। অনেক ভবনের দরজা জানালা আটকানো জায় না। খোলা রেখেই রাতে ঘুমাতে হয়। তাই অনেক পরিবার আবাসনের ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। আমতলী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায় কর্মকর্তা মো. জামাল হুসাইন বলেন, আবাসেনের ভবনগুলো সরেজমিন দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই রকম আরো সংবাদ
দৈনিক দেশ টিভি

দেশ প্রতিদিন টিভি

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন

দৈনিক দেশ প্রতিদিন